Header Ads

Header ADS

প্রেমের মঞ্জুরী || অনুগল্প || মিন্টু ভদ্র

দুপুর গড়িয়ে বিকেল এসেছে গ্রামটিতে। গোধূলির প্রতিক্ষাতে গুমোট বর্ষার এ বিকেল অন্য যেকোন বিকেলের মত হলেও মঞ্জরীর জন্য সবচেয়ে আলাদা, অন্যরকম। আজকের দিনটি যেকোন নারীর জন্য বড্ড আকাঙক্ষার, বড্ড স্পেশাল।
আজকের গোধূলী রাঙ্গা আলোয় সাজবে মঞ্জরীর ঠোঁট, আপল্লব চক্ষুতে জ্বলজ্বল করবে কাজলের আকিবুকি। মাঝ সিঁথিতে উঠবে সিঁদুর, লাল টিপে প্রতিদিন সুপ্রভাত হবে কপালের।

বাড়ির পেছনের খোলা ঘন সবুজ মাঠ পেরিয়ে দক্ষিণে তাকালেই প্রথমে যে সবুজ প্রাচীর দেওয়া গ্রামটি দেখা যায়, ওটা তন্ময়দের গ্রাম। আর গ্রামটি পেরিয়ে সরু রাস্তা ধরে খানিকটা এগোলেই উন্মত্ত পদ্মা। তন্ময়কে আপনারা চিনতে পারবেন না, ওরা ব্যর্থ প্রেমিক ---ওরা অসহায়। অবলা বালিকা মঞ্জুরীর মত কিছুই করার থাকেনা ওদের। ওদেরকে ভুলে যায় সকলেই, ওদের বুকের ক্ষতগুলোও একদিন ঝিনুকের দারুণ প্রদাহ--- মুক্তায় পরিবর্তিত হয়। বাইরে থেকে সেসব দেখা যায় না, সেসব কেউ কোন দিনও দেখেনি। ভুল করেও কেউ কখনো জানতেও চায়নি মঞ্জুরীদের হৃদয়ের চাওয়া, তন্ময়দের চিলেকোঠার ভালোবাসা।

এখন বিকেল। সন্ধ্যার পর বরযাত্রী আসবে। দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয়-স্বজনে পরিপূর্ণ ছিমছাম ছোট্ট বিয়েবাড়ি। এখনই বিয়েবাড়ির স্বভাব হট্টগোল শুরু হয়ে গেছে। সময় ক্রমেই নিকটবর্তী হচ্ছে, মঞ্জুরীকেও সাজার জন্য প্রস্তুত হতে হবে। আলতা, চুড়ি, ফিতা, স্নো, পাওডার, লিপস্টিক... কত কী!

কিন্তু এসবের কিছুই হয়নি। এই অন্যরকম সবচেয়ে স্পেশাল দিনটির রাঙ্গা গোধূলির আলো গগনচুম্বী ঘূর্ণি ধুঁয়ায় ফ্যাকাসে হয়ে উঠেছে। দিনটা সত্যিই সবচেয়ে স্পেশাল মঞ্জুরী আর তন্ময়ের জন্য।

তন্ময় বলেছিল, "চল পালায়"। মঞ্জুরীও কথা দিয়েছিল --- পালিয়ে যাবে।
ওরা পালিয়ে গেছে, ওরা জয়ী হয়েছে। ওদের প্রেম পরিণতি পেয়েছে সর্বনাশা পদ্মা পাড়ে একটি শ্মশানের লেলিহান চিতায়।

প্রেমের মঞ্জুরী || অনুগল্প
মিন্টু ভদ্র
২৩/০৭/২০১৮


কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.